দুপুর ১২:০৪, ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

কোটিপতি অপূর্ব-মেহজাবীন!

বিনোদন ডেস্ক : দিন দিন ইউটিউবের দর্শক বেড়েই চলেছে। বিনোদনের সবকিছুই এখন খুব সহজে এই মাধ্যমে দেখা যায়। এখনকার সময়ের দর্শকদের কাছে নাটক দেখারও প্রধান মাধ্যম ইউটিউব হয়ে দাঁড়িয়েছে। শুধু দেখাই নয়, একটি নাটকের সফলতা-বিফলতাও খুব সহজে নির্ণয় করা যায় এর মাধ্যমে। সেই মাপকাঠিতে অসংখ্য নাটকের ভিড়ে এবার রেকর্ড গড়লো নাটক ‘মিস্টার অ্যান্ড মিস চাপাবাজ’।

চলতি বছর ৬ আগস্ট নাটকটি সিএমভির ইউটিউবে উন্মুক্ত হওয়ার পর আজ (১৮ অক্টোবর) নাগাদ সেটি অতিক্রম করলো ১০ মিলিয়ন ভিউ! মানে এক কোটির ঘর। মাত্র ৭৩ দিনেই কোটির মাইলফলক ছুঁয়েছে নাটকটি। বাংলাদেশের নাটক ইতিহাসে সবচেয়ে দ্রুত সময়ে এই বিস্ময়কর ভিউ গড়ার তালিকায় নাটকটি স্থান করে নিয়েছে দ্বিতীয় অবস্থানে। রাজীব আহমেদের চিত্রনাট্য ও রুবেল হাসানের পরিচালনায় এই নাটকের প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন টিভি নাটকের সবচেয়ে জনপ্রিয় জুটি জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও মেহজাবীন চৌধুরী।

দ্রুততম ১০ মিলিয়ন ভিউয়ের তালিকায় প্রথম স্থানে আছে একই জুটি অভিনীত মিজানুর রহমান আরিয়ানের ‘বড় ছেলে’ (২০১৭) নাটকটি। এটি ৩৪ দিনে এক কোটি ভিউ অতিক্রম করে।

নির্মাতা রুবেল হাসানের ভাষ্য, ‘এতোটা পাবো কল্পনাও করিনি। আমরা চেয়েছি মজার ছলে দর্শকদের একটা ভালো বার্তা দিতে। সেটিকে দর্শকরা গ্রহণ করায় আরও ভালো কাজের জন্য উৎসাহ পেলাম। অপূর্ব ভাই, মেহজাবীন আপু, প্রযোজক পাপ্পু ভাই, ডিওপি কামরুল ইসলাম শুভ থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্ট প্রতিটি মানুষের সঠিক অংশগ্রহণের কারণেই এমন সফলতা এলো। আমি তাদের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। এই অর্জন সবার।’

এদিকে অপূর্ব-মেহজাবীন ভাষ্যটাও বেশ কাছাকাছি। তারা বললেন, ‘দ্রুততম ১০ মিলিয়নের ক্লাবে এতোদিন আমাদের রোল নম্বর ছিল এক। এবার যুক্ত হলো আরও একটি। অর্থাৎ প্রথম দুটি দ্রুততম নাটকই আমাদের! এটা আমাদের জন্য বড় প্রাপ্তি। কৃতজ্ঞতা জানাই, দর্শক এবং নির্মাতা-প্রযোজককে। তাদের জন্যই আজ আমাদের এতদূর আসা।’

অপূর্ব আলাদা করে এটুকুও বলেন, ‘দেখুন আমরা যে রাত-দিন টানা পরিশ্রম করে কাজগুলো করি, সেটার মূল উদ্দেশ্য দর্শকদের ভালোবাসা পাওয়ার আশা। তাদের প্রতিটি ভিউ আর কমেন্ট- আমাদের কাছে হার্টবিটের মতো। সে অবস্থান থেকে এই নাটকটির এমন সফলতা খুব শান্তি দেয়। ক্লান্তি দূর করে। নতুন নতুন কাজ করার আগ্রহ পাই।’

‘মিস্টার অ্যান্ড মিস চাপাবাজ’ নাটকের প্রযোজক-পরিবেশক এসকে সাহেদ আলী পাপ্পু বলেন, ‘গানের সঙ্গে আমাদের বসবাস দীর্ঘ দিনের। যেখানে কোটি ভিউয়ের স্বাদ অনেকবার নিয়েছি। তবে নাটক প্রযোজনায় এক বছরও হয়নি সিএমভি’র। সেই অবস্থায় মাত্র ৭৩ দিনে নাটক থেকে এই অর্জন অবিশ্বাস্য। আমি কৃতজ্ঞতা জানাই নাটকটির সঙ্গে সম্পৃক্ত সবার প্রতি। ধন্যবাদ জানাই দর্শকদের। তারাই আমাদের মূল চালিকা শক্তি।’