সকাল ১০:৪৯, ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সংসদ ভবনের লেকে পাল তোলা নৌকা!

নিউজ ডেস্ক : জাতীয় সংসদের লেকে ভাসতে শুরু করেছে পাল তোলা নৌকা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী (মুজিববর্ষ-২০২০) উপলক্ষে এ কর্মসূচি হাতে নিয়েছে বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন। এ ছাড়া মুজিববর্ষ উপলক্ষে বিশেষ অধিবেশনকে সামনে রেখে পুরো সংসদ ভবনজুড়ে নানা প্রস্তুতি চলছে।
বৃহস্পতিবার শান্ত জলের বুকে ভাসিয়ে দেয়া হবে অপরূপ দুটি চারু নৌকা। বিশিষ্ট অতিথিদের নিয়ে নৌকা দুটি সংসদ ভবনের চারপাশ ঘুরবে।

সংসদ সচিবালয় সূত্র জানায়, আগামী ৮ নভেম্বর থেকে সংসদ অধিবেশন শুরু হবে। এরপর ৯ নভেম্বর থেকে ১২ নভেম্বর পর্যন্ত চারদিন চলবে বিশেষ অধিবেশন। বিশেষ অধিবেশনের প্রথম দিনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বঙ্গবন্ধুর বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন নিয়ে স্মারক বক্তব্য দেবেন। ওই ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাব এনে সাধারণ আলোচনা করবেন সরকার ও বিরোধী দলীয় সদস্যরা। বিশেষ অধিবেশনের এই কর্মসূচি ঘিরেই চলছে মূল প্রস্ততি। এর পাশাপাশি সংসদ ভবন এলাকায় পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার ও সাজসজ্জার কাজও শুরু হয়েছে। যার অংশ হিসেবে সংসদ লেকে নৌকা ভাসানো হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় সংসদ ভবন লেক পাড়ে নৌকা ভাসানো কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হবে। জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরীর এ কর্মসূচীর উদ্বোধন করবেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী এবং বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী।

উল্লেখ্য, মুজিববর্ষ উপলক্ষে গত ২২ মার্চ সংসদের বিশেষ অধিবেশন (সপ্তম অধিবেশন) আহ্বান করা হলেও দেশে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি বেড়ে যাওয়ায় তা স্থগিত করেন রাষ্ট্রপতি। করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ার পাশাপাশি সব ধরনের অফিস-আদালত খুলে দেয়ার প্রেক্ষাপটে সর্বশেষ নতুন করে অধিবেশন ডাকা হয়েছে। আগের তিনটি অধিবেশনে সব ধরণের দর্শনার্থী প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও বিশেষ অধিবেশনে অংশগ্রহণের সুযোগ থাকবে গণমাধ্যম কর্মীসহ আমন্ত্রিত অতিথিদের। তবে তাদেরকে করোনা নেগেটিভ সনদ সংগ্রহ করতে হবে।