সকাল ১১:৪১, ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ফেসবুক পেজে মুশফিক-সজীব, তোমার আত্মহত্যায় আমি খুবই মর্মাহত

স্পোর্টস ডেস্ক : সজীবুল ইসলাম, তরুণ এক ক্রিকেটার। ২০১৮ সালের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের স্ট্যান্ডবাই খেলোয়াড় ছিলেন। শনিবার গভীর রাতে রাজশাহীতে নিজ ঘরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন এই তরুণ। স্বজন ও পরিবারের দাবি, আসন্ন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের প্লেয়ার্স ড্রাফটে নাম না থাকায় হতাশ হয়ে আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছেন ২২ বছর বয়সী ক্রিকেটার। তার এই মৃত্যু ছুঁয়ে গেছে দেশের ক্রিকেটমহলকে, ব্যথিত হয়েছেন বাংলাদেশের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম।

সজীবের মৃত্যুতে অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে মুশফিক লিখেছেন, আমরা সবাই ক্রিকেট ভালোবাসি। কিন্তু মনে রাখতে হবে ক্রিকেটের বাইরেও জীবন আছে। আমাদের দেশের সম্ভাবনাময়ী ক্রিকেটার মোহাম্মদ সজীবের আত্মহত্যার খবর শুনে খুবই মর্মাহত। যা কিছু হোক না কেন, এই ধরনের কাজ করার আগে আমি প্রত্যেককে তার পরিবার ও ভালোবাসার মানুষের কথা ভাবতে বলবো। আত্মহত্যা কোনও সমাধান নয়। আল্লাহ আমাদের জন্য সবকিছু ঠিক করে রেখেছেন এবং তার পরিকল্পনায় বিশ্বাস রাখতে হবে। তার বিদেহী আত্মা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের জন্য প্রার্থনা করছি। খুব তাড়াতাড়ি চলে গেলে।

সজীবের বড় ভাই তশিকুল ইসলাম জানান, তার ভাইয়ের ছোটবেলা থেকে ক্রিকেট খেলার প্রতি আগ্রহ ছিল। খেলার জন্য অনেক বকাও খেতে হয়েছে পরিবারের কাছে। একসময় তিনি নিজেকে প্রতিষ্ঠিত খেলোয়াড় হিসেবে গড়ে তুলতে ভর্তি হন রাজশাহীর বাংলা ট্র্যাক নামের একটি ক্রিকেট একাডেমিতে।

সজীব অনূর্ধ্ব-১৫, ১৭ ও ১৯ দলে খেলেছেন। তিনি জাতীয় অনূর্ধ্ব-১৯ দলের খেলোয়াড় হয়ে শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়েছিলেন। এমনকি ভারতের বিপক্ষে ৯৫ রানের একটা ইনিংসও রয়েছে তার। – ফেসবুক থেকে