রাত ৩:০৭, ১৪ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:

থিতু হওয়ার আগেই আড়ালে চলে যাচ্ছেন চলচ্চিত্রের নবাগতরা

বিনোদন ডেস্ক : ন’ ডরাই ছবির নায়িকা সুনেরা বিনতে কামাল একটি নতুন ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। ছবিটির নাম প্রকাশ না করে তিনি জানান দিয়েছেন, আগামী আগস্টে ছবিটির কাজ শুরু হবে। তিনি গণমাধ্যমকে বলেছেন, গুণগতমান সম্পন্ন ছবিতেই কাজ করতে চান।

নতুন ছবি শুরু করতে যাচ্ছেন আয়বাজি ছবির নায়িকা নাবিলাও। তিনিও ছবির নাম বলেননি। কিন্তু খবরের বাইরে রয়েছেন উনপঞ্চাশ বাতাস ছবির নায়িকা শার্লিন ফারজানা। এর আগে তিনি জাগো নামে একটি ছবিতে কাজ করেছেন। পিয়া বিপাশা রুদ্র দ্যা গ্যাংস্টার এবং জিন নামে দুটি ছবিতে কাজ করলেও এখন আর তার নাম শোনা যাচ্ছে না।

নুসরাত ফারিয়া বিয়ে নিয়েই বেশি ব্যস্ত। শোবিজে তার নামও অনেকটা ম্লান। নাইরোজ সিফাত কাজ করেছেন ঢাকা ড্রিম ও গিরগিটি ছবিতে। তিনি বেশি ব্যস্ত নাটক, ওয়েব সিরিজ নিয়েই বেশি ব্যস্ত। অমৃতা খান প্রায় ছয় থেকে সাতটা ছবিতে কাজ করার পরও চলে গেছেন সকলের আড়ালে। ক্যামেলিয়া রাঙ্গা নামে একজন নায়িকা শিকল ছবিতে অভিনয় করেছেন। এ পর্যন্তই তার খবর শেষ। মিষ্টি জান্নাতের নাম শোনা যায় কদাচিৎ। তিনি কি করে বলবো প্রিয়তমা নামে একটি ছবিতে কাজ করছেন এখন।

এই সারিতে রয়েছেন আরো অনেক নবাগত। তারা একটি ঘরানার মধ্যে নিজেদেরকে সীমাবদ্ধ করে রাখায় মূলধারার চলচ্চিত্রে তাদের দেখা যাচ্ছে না। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক এবং ইনস্ট্রাগ্রামে তাদের অনেকেরই অনেক রঙ বেরঙের ছবি দেখা যায়। সে সব বেশির ভাগ ছবির সঙ্গে তাদের ভালোমন্দ নিয়ে বলা নানা কথার কোনো মিল খুঁজে পাওয়া যায় না। তারা বলে থাকেন, ‘বাণিজ্যিক ছবিতে যেভাবে পর্দায় উপস্থাপন করা হয় সেভাবে উপস্থাপিত হতে চাই না।’ কিন্তু একটা বিষয় তারা বুঝেও না বুঝার ভান করেন। ছবি নির্মাণ করতে একটা বড় অংকের অর্থ বিনিয়োগ হয়ে থাকে। বিনিয়োগের চরিত্র হলো বাজারজাত হওয়া। ছবি নির্মিত হয় দর্শককে সামনে রেখে। বাজারজাত হয়ে যখন একটি ছবি দর্শক প্রত্যাখাত হয় তখন দোষ পড়ে নির্মাতার উপর। আসলে এসব নবাগতরা কি চান সেটাও তারা জানেন না। এজন্য তারা মৌসুমী, শাবনূর, পপি বা পূর্ণিমার মতো থিতু হতে পারছেন না।